সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২ ইং         ০৯:২৯ পূর্বাহ্ন
  • মেনু নির্বাচন করুন

    সহায় এর তত্ত্বাবধানে সোনাগাজী জেলে পাড়ায় মসজিদ পুনঃনির্মাণ


    ফাইল ছবি
    শেয়ার করুনঃ

    ফেনীর সমুদ্র উপকূলীয় উপজেলা সোনাগাজীর সদর ও চরচান্দিয়া ইউনিয়নের মধ্যবর্তী স্থা্ন জেলেপাড়ায় বর্ধিত করে একটি পাঞ্জেগানা মসজিদ পুনঃ নির্মাণ করা হয়েছে। দেশ ও প্রবাসীদের আর্থিক সহযোগিতায় ও ফেনীর স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সহায়ের সার্বিক তত্বাবধানে এই মসজিদের পূর্ণ নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

    শুক্রবার (১৩ নভেম্বর) বিকেলে আসরের নামাজ আদায়ের মাধ্যমে মসজিদের আনুষ্ঠানিক উদ্ধোধন হয়। সামাজিক সংগঠন সহায়' র সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ দুলাল তালুকদারের সঞ্চালনায় সংক্ষিপ্ত আলোচনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন চরচান্দিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন মিলন, সহায়' র অন্যতম উপদেষ্টা সাংবাদিক মুহাম্মদ আবু তাহের ভূঁইয়া, সহ-সভাপতি জুলহাস তালুকদার, ইয়াসির আরাফাত রুবেল, স্থানীয় ইউপি সদস্য সফিউল্লাহ ছুট্টু মহাজন।


    এছাড়া উপস্থিত ছিলেন, দৈনিক কালের কন্ঠের সোনাগাজী প্রতিনিধি শেখ আবদুল হান্নান, দৈনিক প্রথম আলো সোনাগাজী প্রতিনিধি আমজাদ হোসাইন, প্রথম আলো ফেনী বন্ধুসভার সভাপতি শেখ আশিকুন্নবী সজীব, অনলাইন নিউজ পোর্টাল সত্যের অনুসন্ধানের সম্পাদক নাজিম চৌধুরী, সিলেটের একমুঠো হাসিঁর খোজেঁ ফাউন্ডেশনের সভাপতি জুয়েল আহম্মেদ সাফি,সহায়ের সহ সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির পারভেজ, সাংগঠনিক সম্পাদক মাজেদুল হক রিমন প্রমুখ।

    গত ৫ নভেম্বর ফেনী সোনাগাজী উপজেলার সোনাগাজী সদর ও চরচান্দিয়া ইউনিয়নের মধ্যবর্তী স্থানে 'জেলে পাড়ায় ১০ বছরেও পান্জেগানা মসজিদের উন্নয়ন হয়নি'-সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এমন একটি পোস্ট দিয়ে সহযোগিতার আহ্বান জানানো হয়েছিল স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সহায়ের পক্ষ থেকে। এতে দেশের ও প্রবাসী অনেকে সহযোগিতায় এগিয়ে আসেন। সবার দান থেকে প্রাপ্ত লক্ষাধিক টাকা ব্যয়ে শুক্রবার মসজিদের বর্ধিতকরন ও পুন : নির্মাণের কাজ শেষ হয়েছে।


     স্থাপন করা হয়েছে টিউবওয়েল ও অযুখানা, আজানের জন্য দেয়া হয়েছে মাইক ,ভিতরে রয়েছে কার্পেট। নদীভাঙ্গনের কারনে গত ১০ বছর আগে বিলীন হয় জেলেপাড়ার পান্জেগানা মসজিদটি। পরে স্থানীয় এক মৎস্য ব্যবসায়ীর সহযোগিতায় মসজিদটি অন্যত্র স্থাপন হলেও বিগত বছর গুলোতে কেউ এগিয়ে আসেনি মসজিদের আধুনিকায়নে।


    জেলে পাড়াটি হিন্দু অধ্যুষিত এলাকা হলেও এখানে অনেক মুসলিম পরিবারের বসবাস রয়েছে।তা ছাড়া শহর থেকে নদী দেখতে যাওয়া অনেকেই নামাজ আদায় করেন এই মসজিদে। কিন্তু টিনের ছাউনী না থাকার কারনে বৃষ্টির সময় কেউ নামাজ আদায় করতে পারতোনা।চারপাশ অরক্ষিত থাকার কারনে সেখানে প্রায়ই ঢুকে পড়তো গরু ছাগল। মসজিদটি পূর্ণ সংস্কারের জন্য সবার সহযোগিতা চেয়েছিলেন সেখানকার মুসুল্লিরা।


    আপনার মন্তব্য লিখুন
    © 2022 chhagalnaiya.com All Right Reserved.
    Developed By Skill Based IT